1. admin@asianexpress24.com : admin :
  2. asianexpress2420@gmail.com : shaista Miah : shaista Miah
সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২:০৮ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
আগে তুমি মানুষ হবে : মুহিবুর রহমান সুইট  লোহাগড়ায় হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার আর রহমান এডুকেশন ট্রাস্টের ৩৫তম টিউবওয়েল প্রদান বিশ্বনাথ টেংরা বটেরতল নোয়াগাঁও সড়কের বেহাল দশা রেনেসাঁ স্টুডেন্ট ফোরাম মাহতাব পুর কর্তৃক এসএসসি ও দাখিল  কৃতি সংবর্ধনা ২৪  সম্পন্ন বিশ্বনাথে এসএসসি ও দাখিল উত্তীর্ণদের উপজেলা ছাত্র মজলিসের সংবর্ধনা প্রদান বিশ্বনাথ ক্যামব্রিয়ান কলেজের স্টুডেন্ট কাউন্সিল সম্পন্ন লোহাগড়া উপজেলায় চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান হলেন যারা আমি কাজ করে মানুষের হৃদয়ে স্থান করব : সুহেল চৌধুরী বিশ্বনাথে আন্ত:স্কুল সংসদীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতার ১ম রাউন্ড অনুষ্ঠিত
শিরোনাম
আগে তুমি মানুষ হবে : মুহিবুর রহমান সুইট  লোহাগড়ায় হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার আর রহমান এডুকেশন ট্রাস্টের ৩৫তম টিউবওয়েল প্রদান বিশ্বনাথ টেংরা বটেরতল নোয়াগাঁও সড়কের বেহাল দশা রেনেসাঁ স্টুডেন্ট ফোরাম মাহতাব পুর কর্তৃক এসএসসি ও দাখিল  কৃতি সংবর্ধনা ২৪  সম্পন্ন বিশ্বনাথে এসএসসি ও দাখিল উত্তীর্ণদের উপজেলা ছাত্র মজলিসের সংবর্ধনা প্রদান বিশ্বনাথ ক্যামব্রিয়ান কলেজের স্টুডেন্ট কাউন্সিল সম্পন্ন লোহাগড়া উপজেলায় চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান হলেন যারা আমি কাজ করে মানুষের হৃদয়ে স্থান করব : সুহেল চৌধুরী বিশ্বনাথে আন্ত:স্কুল সংসদীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতার ১ম রাউন্ড অনুষ্ঠিত বিশ্বনাথে ৬ চেয়ারম্যান ২ ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত  ফুলবাড়ীতে পাগলা কুকুরের কামড়ে এক স্কুল ছাত্রের মৃত্যু লোহাগড়া উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী মুন্সী নজরুল ইসলামের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত বিশ্বনাথের খাজাঞ্চীতে আনারস মার্কার সমর্থনে মতবিনিময় বিশ্বনাথের ‘আনারস প্রতীকের গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে -এডভোকেট গিয়াস

সরকার ষড়যন্ত্রকারীদের নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হলে কঠোর কর্মসূচীঃপীর চরমোনাই

  • Update Time : মঙ্গলবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ২০০ Time View

আশরাফুল ইসলাম খুলনা সদর প্রতিনিধি: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর নায়েবে আমীর আল্লামা সৈয়দ ফয়জুল করীম, আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী ও মুফতি মামুনুল হকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবী এবং মানব মূর্তি ও ভাস্কর্য নিয়ে বিরাজমান পরিস্থিতিকে দেশবিরোধী চক্রান্ত হিসেবে আখ্যায়িত করছেন পীর সাহেব চরমোনাই, তিনি বলেন চক্রান্তকারীরা বাংলাদেশের মানুষের ঐক্য বিনষ্ট করে ভিনদেশী এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে সামাজিক ও ধর্মীয় অস্থিতিশীলতা তৈরি করতে চায়। পীর সাহেব চরমোনাই বলেন একটি সুবিধাভোগী মহল সাধারণ মুসলিম জনতার মতামতকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন ধরনের হুমকি-ধমকি দিয়ে বিশৃঙ্খলা তৈরির অপচেষ্টা করেছন। পদ্মা সেতু প্রকল্পের ঢাকা প্রবেশদ্বারে বঙ্গবন্ধুকে স্বরন করে স্থাপিত হতে যাওয়া ভাষ্কার্য নিয়ে একটি বিতর্ক তৈরি হয়েছে। ৫/৭ টি মসজিদ মাদ্রাসার মিলন মোহনায়, ২ টি মসজিদের অবকাঠামো ভেঙ্গে এই পয়েন্টে ভাষ্কার্য স্থাপনের ফলে স্থানীয় ইমাম মুসল্লী ও জনতা ভাস্কর্যের বদলে বিকল্প কোন উত্তম পন্থায় বঙ্গবন্ধুকে স্মরণীয় করে রাখার দাবী জানিয়ে ছিলো। আজ মঙ্গলবার ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দেশের উদ্ভূত পরিস্থিতিতে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে পীর সাহেব চরমোনাই এসব কথা বলেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন দলের নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ ফয়জুল করীম শায়খে চরমোনাই, অধ্যক্ষ মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী, ও আলহাজ্ব খন্দকার গোলাম মাওলা, অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান ও মওঃ গাজী আতাউর রহমান,, আমিনুল ইসলাম, মাওঃ ইমতিয়াজ আলম, ইঞ্জিঃ আশরাফুল আলম, কেএম আতিকুর রহমান, আহমদ আবদুল কাইয়ূম, মাওঃ দেলাওয়ার হোসাইন সাকী, মাওঃ নেছার উদ্দিন, বরকত উল্লাহ লতিফ, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম, জিএম রুহুল আমীন, মাওঃ খলিলুর রহমান, এডভোকেট একেএম এরফান খান, ছাত্রনেতা এম হাছিবুল ইসলাম, , শহিদুল ইসলাম কবির, ইলিয়াস হাসান প্রমুখ। পীর সাহেব বলেন, সরকারের বিদ্যমান আইন কানুন মেনেই তৌহিদী জনতা সমাবেশ করেছে এবং সেখানে শালীন ভাষাতেই যৌক্তিকভাবে মানবভাস্কর্য বিষয়ে বক্তব্য তুলে ধরা হয়েছে। একই সাথে বঙ্গবন্ধুকে সম্মান জানানোর বিকল্প পন্থাও প্রস্তাব করা হয়েছে। বিষয়টি একেবারেই স্বাভাবিক একটি নাগরিক প্রতিক্রিয়া। কিন্তু একটি সুবিধাভোগী মহল এটিকে কেন্দ্র করে দেশে চরম উস্কানী ও উত্তেজনা তৈরী করছে। তিনি বলেন, সরকার যেখানে প্রতিবাদ সমাবেশের অনুমতি দিয়ে যৌক্তিক আলোচনা ও মতামতের পরিবেশ সংযমের সাথে বজায় রেখেছে সেখানে জনবিচ্ছিন্ন সুবিধাভোগী শ্রেণিটি উলামায়ে কেরামকে সন্ত্রাসী ভাষায় গালিগালাজ করছে, ঢালাওভাবে অপবাদ দিচ্ছে। মাহফিলের মতো ধর্মীয় সংস্কৃতিকে উগ্রপন্থায় প্রতিহত করার ঘোষণা ও রাজপথে সন্ত্রাসী কায়দায় উগ্র বক্তব্য ও শ্লোগান দিচ্ছে। যা অত্যন্ত দুঃখজনক ও উদ্বেগের বিষয়। আইন অমান্য করে সন্ত্রাসী কায়দায় প্রকাশ্যে আলেমসমাজকে মারধর, অপমান এমনকি তাদের প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। তিনি বলেন, এহেন পরিস্থিতিতে আমরা পরিষ্কার করে জানাচ্ছি যে, উলামায়ে কেরামের দাবীর মধ্যে স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধুর প্রতি কোন বিদ্বেষ ছিলো না, অসম্মানও ছিলো না। বরং বিষয়টি ছিলো দেশের প্রায় ৯২%জনগণের বোধ বিশ্বাসের সাথে সাংঘর্ষিক মুর্তি স্থাপন না করে অন্য কোন পন্থায় তাকে স্মরণ করার দাবী। আলেমসমাজ ও সাধারণ ধর্মপপ্রাণ জনগণ এ ক্ষেত্রে সরকারের কাছে নিজেদের প্রাণের আকুতি তুলে ধরতেই পারে। এই যৌক্তিক দাবীকে কেন্দ্র করেই তারা তাদের দীর্ঘ দিনের লালিত মূর্তি প্রীতি ও বিজাতীয় চেতনার বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়েছে। বিষয়টিকে বিকৃতভাবে উপস্থাপন করে দেশের সর্বজন শ্রদ্ধেয় উলামায়ে কেরামকে অপদস্থ করার হাতিয়ার হিসেবে গ্রহণ করেছে। এসব কোন দেশপ্রেমিক মানুষের কাজ হতে পারে না। সৈয়দ রেজাউল করীম বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে আজ ৫০বছর হতে চলছে। ঐক্যবদ্ধ এই জাতি মাত্র ৯মাসে দেশটাকে স্বাধীন করেছে। এখানকার মানুষের ভাষা-সংস্কৃতি-ধর্মও প্রায় এক। এমন ঐক্যবদ্ধতা যে কোন জাতির জন্যই গর্বের। কিন্তু আমরা দুঃখের সাথে লক্ষ করছি, একটি মহল জনতার এই ঐক্যকে ছিন্নভিন্ন করতে চায়। পীর সাহেব বলেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা ও তার পরিবার ৭১ সালে একনিষ্ঠভাবে মুক্তি সংগ্রামের সহযোগী ছিলেন। তার দরবার ছিলো এলাকার সকল ধর্ম-বর্ণের মানুষের আশ্রয়স্থল। বিষয়টি এলাকার মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে সর্বজন বিদিত। যারা এ বিষয়ে বিতর্ক তৈরি করছে, তারা মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে তামাশায় পরিণত করছে। আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাই। পীর সাহেব বলেন, ভাস্কর্য ও মূর্তি ইস্যুতে চরম উস্কানীর মুখেও দেশের শান্তি ও স্থিতিশিলতা বজায় রাখার স্বার্থে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ সীমাহীন ধৈর্য্যরে পরিচয় দিয়ে এসেছে। কিন্তু এরই মাঝে গতকাল মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ নামের একটি ভূইফোড় সংগঠন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীমের নামে একটি জঘন্য মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে। সঙ্গে আরো দুইজন বিশিষ্ট আলেম আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী ও মাওলানা মামুনুল হকের নামেও মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। বিষয়টিকে রাজনৈতিক ইস্যু মনে করিনি। যে কারনে ধৈর্য্যের সাথে পরিস্থিতি পর্যাবেক্ষণ করেছি মাত্র। সংবাদ সম্মেলনে পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, উগ্রবাদী শক্তি ও তাদের উশৃঙ্খল সহযোগীরা আমাদের নিরবতাকে দুর্বলতা ভেবেছে। আমি সরকারকে এসব অন্যায় সীমালঙ্ঘনকারীদের নিবৃত করতে অনু্েরাধ জানাই। ক্ষমতাসীন সরকার এবং তাদের সুবিধাভোগী উগ্র সমর্থকদের সতর্ক করে তিনি বলেন, এদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা আজ ঐক্যবদ্ধ। শান্তিপ্রিয় ধর্মপ্রাণ মানুষের ধৈর্য্যেরও একটা সীমা আছে। আমরা অনেক অপমান সহ্য করেছি। সরকার যদি তাদের সুবিধাভোগী উগ্র সমর্থক এবং দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারী শক্তিগুলোর বাড়াবাড়ি ও উস্কানীমূলক কর্মকান্ড বন্ধ করতে ব্যর্থ হয়, তাহলে দেশপ্রেমিক জনতা ও ধর্মপ্রাণ মানুষ তাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে বাধ্য হবে

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© স্বর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Theme Customized By BreakingNews